ঢাকা সোমবার, ১৮ই নভেম্বর ২০১৯, ৫ই অগ্রহায়ণ ১৪২৬

ব্রাজিলের সঙ্গে এফটিএ’র চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত ডিসেম্বরে: বাণিজ্যমন্ত্রী


প্রকাশিত:
২৮ আগস্ট ২০১৯ ২১:৫৬

আপডেট:
২৮ আগস্ট ২০১৯ ২২:০৬

Published: 2019-08-28 21:56:49 BdST

ফাইল ফটো

প্রাইম বাংলা ডেস্ক: বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি বলেছেন, ‘বাংলাদেশের তৈরি পোশাকের একটি সম্ভাবনাময় বাজার ব্রাজিল। কিন্তু বেশি শুল্কের কারণে সেখানে আশানুরূপ রফতানি করতে পারছে না বাংলাদেশ। এ কারণে ব্রাজিলসহ আর্জেন্টিনা, প্যারাগুয়ে ও উরুগুয়েসহ মার্কোসুরভুক্ত দেশগুলোর সঙ্গে মুক্ত বাণিজ্য চুক্তি (এফটিএ) করতে পারলে বাংলাদেশের তৈরি পোশাকসহ বিভিন্ন পণ্যের রফতানি বাড়বে। মন্ত্রী বলেন, ‘এ বছরের নভেম্বর-ডিসেম্বর নাগাদ মার্কোসুর বৈঠকে বাংলাদেশের এই প্রস্তাব উপস্থাপন করা হবে বলে তারা (মার্কোসুরভুক্ত দেশ) কথা দিয়েছে। ’


বুধবার (২৮ আগস্ট) সচিবালয়ে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে সাংবাদিকদের তিনি এসব কথা বলেন।

গত ১২ থেকে ২৪ আগস্ট পর্যন্ত মার্কোসুরভুক্ত চারটি দেশ (ব্রাজিল, আর্জেন্টিনা, প্যারাগুয়ে ও উরুগুয়ে) সফর করেন বাণিজ্যমন্ত্রী। এই সফরের বিস্তারিত বিবরণ সাংবাদিকদের কাছে তুলে ধরেন তিনি । এ সময় উপস্থিত ছিলেন— বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব মফিজুল ইসলাম, অতিরিক্ত সচিব মো. শফিকুল ইসলাম ও বিজিএমইএ’র সভাপতি ড. রুবানা হক।

বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, ‘এই চারটি দেশে ৩০ কোটি মানুষ বসবাস করে, যেখানে বছরে তিন দশমিক চার ট্রিলিয়ন ডলার জিডিপি’র একটি সুবিশাল অর্থনৈতিক অঞ্চল রয়েছে। এ অঞ্চলে বাংলাদেশের পণ্য রফতানির বিশাল সম্ভাবনা আছে, বিশেষ করে তৈরি পোশাক শিল্প বা আরএমজি। কিন্তু এ ক্ষেত্রে শুল্ক হার বেশি। পণ্য রফতানি করতে আমাদের ৩৫ শতাংশ শুল্ক দিতে হয়। সে কারণে এই চার দেশের সঙ্গে এফটিএ চুক্তি করতে পারলে, বাংলাদেশের তৈরি পোশাক, টেক্সটাইল, ওষুধ, তামাক, চামড়া. চামড়াজাত পণ্য রফতানির বিশাল সম্ভাবনা রয়েছে।’

টিপু মুনশি বলেন, ‘এই চার দেশের সঙ্গে সম্পর্ক গভীর করতে আগামী ৭ ও ৮ নভেম্বর ব্রাজিলের সাও পাওলোতে একটি মেলা হবে। সরকারের পৃষ্ঠপোষকতায় এই মেলার আয়োজন করা হবে। সেখানে বাংলাদেশের তৈরি পোশাকসহ রফতানিযোগ্য সব ধরনের পণ্য প্রদর্শিত হবে।’



আপনার মতামত শেয়ার করুন:

Top